গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমারেখা তালিকা PDF – গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমান্ত

গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমারেখা তালিকা PDF: প্রতিবছর বিভিন্ন সরকারি চাকরির পরীক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমান্ত PDF থেকে অনেক প্রশ্ন আসে। তাই আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি Important International Borders PDF.

নিচে আন্তর্জাতিক সীমারেখা মনে রাখার কৌশল, হিডেন বার্গ লাইন, ভারত ও পাকিস্তানের সীমারেখার নাম কি, ডুরান্ড লাইন কোন দুটি দেশকে পৃথক করেছে, বিশ্বের বৃহত্তম সীমারেখা কোনটি, সীমান্ত লাইন, ভারত ও নেপালের সীমারেখার নাম কি, ম্যাকমোহন লাইন কোন দুটি দেশের মধ্যে অবস্থিত PDF টি যত্নসহকারে পড়ুন ও জ্ঞানভাণ্ডার বৃদ্ধি করুন। বিভিন্ন লাইন ও সীমারেখা PDF টি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে এই পোস্টটির নীচে যান এবং ডাউনলোড করুন।

গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমারেখা তালিকা PDF – গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমান্ত

১. ম্যাকমোহন লাইন (McMahon Line)

লাইন নামকরণ করা হয় স্যার হেনরি ম্যাকমোহনের নামে, যিনি ব্রিটিশ ভারত সরকারের পররাষ্ট্র সচিব ছিলেন। এই ম্যাকমোহন লাইন ১৯১৪ সালে সিমলা চুক্তির মাধ্যমে ব্রিটেন ও তিব্বতের স্বীকৃত হয়। চিন সরকার একে বিতর্কিত অংশ বলে মনে করে।

২. ডুরান্ড লাইন (Durand Line)

১৮৯৩ সালে ব্রিটিশ কূটনীতিক এবং ব্রিটিশ ভারতের সিভিল সার্ভেন্ট স্যার মাহমুদুল ডুরান্ড এবং আফগান আমির আব্দুর রহমান খানের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়। বর্তমানে এই সীমারেখার অধিকাংশই রয়েছে আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্যে (প্রায় ২,৪৩০ কিলোমিটার) তবে পাকিস্তান অধিকৃত ভারত (গিলগিট অঞ্চলে) ও আফগানিস্তানের মধ্যে এই রেখার কিছুটা রয়েছে। এর দৈর্ঘ্য প্রায় ১০৬ কিলোমিটার (মতান্তরে ৮০ কিলোমিটার)

৩. র‍্যাডক্লিফ লাইন (Radcliffe Line)

৭ ই আগস্ট ১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দে ভারত বিভাজন সংক্রান্ত সীমানা নির্ধারন রেখার অন্তিম পরিকল্পনা প্রকাশ করা হয়৷ বর্তমানে এই রেখাটির পশ্চিমভাগ ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত ও পূর্বভাগ বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত নামে পরিচিত৷ এই রেখার পরিকল্পক স্যার শেরিল র‍্যাডক্লিফ এর নামে এটি নামাঙ্কিত৷

৪. লাইন অব কন্ট্রোল (Line of Control)

প্রথম ইন্দো-পাক কাশ্মীর যুদ্ধের (১৯৪৭-৪৮ খ্রিস্টাব্দ) ফলস্রুতিতে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের মধ্যস্থতায় কাশ্মীরে যুদ্ধবিরতি যে সীমারেখা সৃষ্টি হয় তা ‘লাইন অফ কন্ট্রোল’ (L.O.C.) নামে পরিচিত। এটি আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত সীমারেখা নয়।

৫. পক প্রণালী (Palk Strait)

পক প্রণালী ভারতীয় রাজ্য তামিলনাড়ু ও দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কার মধ্যবর্তী একটি সামুদ্রিক প্রণালী। এটি উত্তরপূর্বে অবস্থিত বঙ্গোপসাগর ও দক্ষিণে অবস্থিত মান্নার উপসাগরকে একসঙ্গে যুক্ত করেছে। ব্রিটিশ ভারতের মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সির গভর্নর রবার্ট পকের নামে এই প্রণালীর নামকরণ করা হয়েছে।

৬. লাইন অব একচুয়াল কন্ট্রোল (Line of Actual Control)

ভারত ও চীনের তিব্বতের মধ্যে সীমানা নিরুপণ কারী রেখা। পূর্ব লাদাখ ও আকসায় চীনের মধ্যে অবস্থিত এবং ভারত ও চীনের মধ্যে মাঝে মধ্যেই এই লাইন নিয়ে বিবাদ দেখা যায়।

৭. তিনবিঘা করিডর (Tin bigha Corridor)

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে অবস্থিত। ১৯৭৪ এর ১৬ ই মে এর ইন্দিরা গান্ধী-শেখ মুজিবুর রহমান চুক্তি অনুসারে ভারত ও বাংলাদেশ তিনবিঘা করিডোর ও দক্ষিণ বেরুবাড়ীর সার্বভৌমত্ব পরস্পরের কাছে হস্তান্তর করে। পরবর্তীতে বাংলাদেশ সরকারের অনেক বিরোধিতার পর ২০১১ সালে ভারত পূর্ণভাবে এটি বাংলাদেশকে দেওয়ার বদলে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বাংলাদেশ সরকারকে ইজারা হিসাবে দিয়েছিল এই শর্তে যে একই সময়ে দক্ষিণ বেরুবাড়ি ভারতের নিয়ন্ত্রণেই থাকবে।

৮. স্যার ক্রিক লাইন (Sir Creek Line)

ভারত (গুজরাট) ও পাকিস্তান (সিন্ধ প্রদেশ) এর মধ্যে বিতর্কিত লাইন। স্থানীয়রা এই সীমানার নাম দিয়েছে বান গঙ্গা।

৯. ৪৯ ডিগ্রি অক্ষরেখা (49th parallel north)

৪৯ ডিগ্রি উত্তর অক্ষরেখা বরাবর অবস্থিত। এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার মধ্যে সীমান্তরেখা নির্দেশ করে। ৮৯০০ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সীমান্তটি পৃথিবীর বৃহত্তম আন্তর্জাতিক সীমানা।

১০. ২৪ তম সমান্তরাল লাইন (24th Parallel Line)

পাকিস্তানের দাবি অনুসারে এটি ভারত ও পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক সীমানারেখা। ভারত এই সীমানার স্বীকৃতি দেয়নি।

অন্যান্য আন্তর্জাতিক সীমানা

১০. হিন্ডারবার্গ লাইন (Hindenburg Line)

➟ জার্মান ও পোল্যান্ড -এর মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমানা।

১১. সিগফ্রিড লাইন (Siegfried Line)

➟ জার্মানি ও ফ্রান্স -এর মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমানা।

১২. ম্যাজিনো লাইন (Maginot Line)

➟ জার্মান ও ফ্রান্স -এর মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমানা।

১৩. ওডেরনীচ লাইন (Oder‐Neisse Line)

➟ পূর্ব জার্মানী ও পোল্যান্ডের মধ্যে নিরুপিত সীমারেখা

১৪. ম্যানারহেইম লাইন (Mannerheim Line)

➟ ফিনল্যান্ড ও রাশিয়া-এর মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমানা।

১৫. কার্জন লাইন (Curzon Line)

➟ পোল্যান্ড-রাশিয়া এর মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমানা।

১৬. ফচ লাইন (Foch Line)

➟ পোল্যান্ড ও লিথুনিয়া।

১৭. নর্দার্ন লিমিট লাইন (Northern Limit Line)

➟ উত্তর কোরিয়া-দক্ষিণ কোরিয়া।

১৮. গ্রিন লাইন (Green line)

➟ ইসরাইল ও তার প্রতিবেশী দেশ।

১৯. ব্লু লাইন (Blue Line)

➟ লেবানল ও ইসরাইল।

২০. পার্পল লাইন (Purple Line)

➟ ইসরাইল-সিরিয়া।

২১. আলপাইন লাইন (Alpine Line)

➟ ইতালি ও ফ্রান্স।

২২. ম্যাকনামারা লাইন (McNamara Line)

➟ উত্তর ও দক্ষিণ ভিয়েতনাম।

২৩. সনোরা লাইন (Sonora Line )

➟ মেক্সিকো ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

২৪. নর্দার্ন লিমিট লাইন (Northern Limit Line)

➟ উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া।

২৫. মিলিটারি ডিমারকেশন লাইন (Military Demarcation Line)

➟ উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া, এটি Armistice Line নামেও পরিচিত।

২৬. ফচ লাইন (Foch Line)

➟ পোল্যানড ও লিথুয়ানিয়ার মধ্যে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় নির্মিত লাইন।

২৭. লাইন অব ডিমারকেশন (Line of Demarcation)

➟ পর্তুগাল ও স্পেনের সীমানারেখা। ১৪৯৪ খ্রিস্টাব্দে টানা হয়েছিল।

২৮. ৮ ম সমান্তরাল লাইন (8th Parallel Line)

➟ সোমালিয়াও ইথিওপিয়া

২৯. ১৭ তম সমান্তরাল লাইন (17th Parallel Line)

➟  উত্তর ও দক্ষিণ ভিয়েতনাম

৩০. ২০ তম সমান্তরাল লাইন (20th Parallel Line)

➟  লিবিয়া ও সুদান

৩১. ২২ তম সমান্তরাল লাইন (22nd Parallel Line)

➟  মিশর ও সুদান

৩২. ৩১ তম সমান্তরাল লাইন (31st Parallel Line)

➟  ইরান ও ইরাক

৩৩. ৩৮ তম সমান্তরাল লাইন (38th Parallel Line)

➟  উত্তর ও দক্ষিণ করিয়া

৩৪. ৫২ তম সমান্তরাল লাইন (52nd Parallel Line)

➟  আর্জেন্টিনা ও চিলি

File Details:
File Name: গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সীমারেখা [www.gksolve.in]
File Format: PDF
Quality: High
File Size: 3 Mb
File Location: Google Drive

Click Here to Download

Leave a Comment