ভারতের বিভিন্ন কয়লাখনি তালিকা – List Of Coal Mines In India

ভারতের বিভিন্ন কয়লাখনি তালিকা – List Of Coal Mines In India: ভারতে কয়লা খনন শুরু হয় যখন ১৭৭৪ সালে জন সুমনার এবং ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সিটনিয়াস গ্রান্ট হিটলি দামোদর নদের পশ্চিম তীরবর্তী রাণীগঞ্জ কয়লক্ষেত্রে বাণিজ্যিক ভাবে কয়লা উত্তোলন শুরু করে। চাহিদা কম থাকায় বৃদ্ধি প্রায় এক শতাব্দী ধরে ধীর ছিল। ১৮৫৩ সালে বাষ্প ইঞ্জিনের (লোকোমোটিভগুলির) প্রবর্তনের ফলে চাহিদা বেড়ে যায় এবং কয়লা উৎপাদন বার্ষিক গড়ে ১ মিলিয়ন মেট্রিক টন (১.১ মিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন) হয়।

ভারত ১৯০০ সালে প্রতি বছর ৬.১২ মিলিয়ন মেট্রিক টন (৬.৭৫ মিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন) এবং ১৯২০ সালে প্রতি বছর ১৮ মিলিয়ন মেট্রিক টন (২০ মিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন) কয়লা উৎপাদন করে। পরের কয়েক দশক ধরে কয়লার উৎপাদন ক্রমাগত বৃদ্ধি পায় এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের দ্বারা সৃষ্ট চাহিদায় কয়লা উৎপাদন আরো উজ্জীবিত হয়। আন্তঃ যুদ্ধের সময়কালে উৎপাদন হ্রাস পেয়েছিল, তবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ফলে ১৯৪৪ সালের মধ্যে উৎপাদন ৩০ মিলিয়ন মেট্রিক টনে (৩৩ মিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন) দাঁড়িয়।

বাংলা, বিহার এবং ওড়িশা নামে পরিচিত ব্রিটিশ ভারতের অঞ্চলগুলিতে ভারতীয়রা ১৮৯৪ সাল থেকে কয়লা উত্তোলনে ভারতের সম্পৃক্ততা থাকার সূচনা করে। তারা ব্রিটিশ এবং অন্যান্য ইউরোপীয়দের দ্বারা পরিচালিত পূর্ববর্তী একচেটিয়া প্রভাব ভেঙে বহু কলি স্থাপন করে। সিনুগ্রার শেঠ খোড়া রামজি চাওদা প্রথম ভারতীয় ছিলেন যিনি ঝাড়িয়া কয়লক্ষেত্রে ব্রিটিশদের একচেটিয়া আধিপত্য ভেঙেছিলেন। অন্যান্য ভারতীয় সম্প্রদায়গুলি ১৯৩০-এর দশকের পরে ধানবাদ-ঝাড়িয়া-বোকারো জমিতে ক্ষত্রিয়দের উদাহরণ অনুসরণ করেছিল। এর মধ্যে পাঞ্জাবি, কাঁচি, মারোয়াড়ি, গুজরাটি, সিন্ধি এবং হিন্দুস্তানিরা অন্তর্ভুক্ত ছিল। স্বাধীনতার পরে, ভারত সরকার বেশ কয়েকটি পঞ্চবার্ষিকী উন্নয়ন পরিকল্পনা চালু করে। প্রথম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার শুরুতে বাৎসরিক উৎপাদন বেড়ে হয় ৩৩ মিলিয়ন মেট্রিক টন (৩৬ মিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন)। কয়লা শিল্পের নিয়মতান্ত্রিক ও বৈজ্ঞানিক উন্নয়নের মাধ্যমে দক্ষতার সাথে কয়লা উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে ১৯৫৬ সালে জাতীয় কয়লা উন্নয়ন কর্পোরেশন (এনসিডিসি) প্রতিষ্ঠিত হয়।

ভারতে বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম কয়লা মজুদ রয়েছে এবং ২০১৬–১৭ সালে ৬৬২.৭৯ মিলিয়ন মেট্রিক টন (৭৩০.৬০ মিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন) কয়লার উৎপাদনের দ্বারা ভারত চতুর্থ বৃহত্তম কয়লা উদপাদঙ্কারী উৎপাদনকারী দেশ। ৩১ শে মার্চ ২০১৭ সাল অবধি, ভারতে ৩১৫.১৪ বিলিয়ন মেট্রিক টন (৩৪৭.৩৮ বিলিয়ন সংক্ষিপ্ত টন) কয়লার মজুদ ভাণ্ডার ছিল।

ভারতে খনিগুলির তালিকাটি তালিকাটি খনিগুলির তালিকা নিবন্ধের সহায়ক নিবন্ধ এবং কার্যক্ষম ও দেশের ভবিষ্যতের খনিগুলির তালিকা তৈরি করে প্রাথমিক খনিজ আউটপুট দ্বারা। ব্যবহারিক উদ্দেশ্যে প্রস্তর, মার্বেল এবং অন্যান্য খনির তালিকা এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে। ভারতে, ভূগর্ভস্থ খনি থেকে পৃষ্ঠের খনি অনুপাতটি হল ২০:৮০।

ভারতের বিভিন্ন কয়লাখনি তালিকা – List Of Coal Mines In India

নংরাজ্যকয়লাখনি
অন্ধ্রপ্রদেশসিংগারেনি, কাঁটাপাল্লি
আসামজয়পুর, মাকুম, নাজিরা, জাঞ্জি, লেডো
ওড়িশাতালচের, হিমগিরি, রামপুর
ছত্তিশগড়কোরবা, বিশরামপুর, ঝিলমিল, রায়গড়
ঝাড়খণ্ডঝরিয়া, ধানবাদ, ডালটনগঞ্জ, করণপুরা, গিরিডি, রামগড়
পশ্চিমবঙ্গরাণীগঞ্জ, চিনাকুড়ি
মধ্যপ্রদেশসিংরাউলি, সোহাগপুর, জোহিলা, উমারিয়া, সাতপুরা
মহারাষ্ট্রওয়ার্ধা, কাম্পতি, বল্লারপুর
মেঘালয়উমরালঙ, লাংরিন

কয়লা উৎপাদনে কোন রাজ্য কততম স্থানে রয়েছে ?

  • প্রথম : ছত্তিসগড়
  • দ্বিতীয় : ওড়িশা
  • তৃতীয় : ঝাড়খন্ড

Note: পশ্চিমবঙ্গ কয়লা উৎপাদনে সপ্তম স্থান অধিকার করেছে।

কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নসমূহ

Q. ভারতের প্রাচীনতম কয়লাখনি কোনটি ?

Ans: রানীগঞ্জ

Q. কয়লা উত্তোলনে কোন রাজ্য প্রথম স্থান অধিকার করেছে ?

Ans: ছত্তিসগড়

Q. ভারতের প্রাচীনতম কয়লাখনি কোনটি ?

Ans: রানীগঞ্জ

Q. কয়লা উত্তোলনে পশ্চিমবঙ্গ কততম স্থান অধিকার করেছে ?

Ans: সপ্তম

Q. কয়লা উৎপাদনে ভারতের স্থান কত ?

Ans: দ্বিতীয়

Q. কয়লা উৎপাদনে শীর্ষ দেশ কোনটি ?

Ans: চীন

Q. ভারতের বৃহত্তম কয়লা খনি অঞ্চল কোনটি ?

Ans: ঝরিয়া

Q. ভারতের কোন রাজ্যে সঞ্চিত কয়লার পরিমান সর্বাধিক ?

Ans: ঝাড়খন্ড

Leave a Comment