বায়ুপ্রবাহের নিয়ন্ত্রক গুলি কী কী?

বায়ুপ্রবাহের নিয়ন্ত্রক গুলি কী কী: ভূ-পৃষ্টের উপর দিয়ে প্রবাহকালে বায়ু উচ্চচাপ অঞ্চল থেকে নিম্নচাপ অঞ্চলের দিকে গমন করে, একে সাধারন ভাবে বায়ুপ্রবাহ বলে। পৃথিবীর বায়ুপ্রবাহ  বিভিন্ন নিয়ন্ত্রকের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এগুলির মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হল – ১. বায়ুচাপের ঢাল  ২. কোরিওলিস বল  ৩. ভূ-কেন্দ্রাতিগ শক্তি  ৪. ঘর্ষনজনিত প্রভাব    

এগুলি নিম্নে আলোচনা করা হল –                    

১. বায়ুচাপের ঢাল (Pressure Gradient): স্থানভেদে বায়ুচাপের পার্থক্য দেখা যায়। সমপ্রেষরেখা গুলি যত কাছাকাছি অবস্থিত হবে ঢাল তত বেশি হবে আবার রেখাগুলি যত দূরে থাকবে বায়ুচাপের ঢাল কম হবে। সমপ্রেষরেখা গুলিকে বায়ুচাপের ঢাল আড়াআড়ি ছেদ করে। বায়ুচাপের ঢাল যত বেশি বায়ুচাপের শক্তি তত বেশি অর্থাৎ Pressure Gradient force যত বেশি বায়ুপ্রবাহের গতিবেগ তত বেশি হবে।

২. কোরিওলিস বল (Coriolis force): বায়ুপ্রবাহের দিক ও গতিবেগ অন্যান্য যে কয়েক্ত কারণ দ্বারা প্রভাবিত হয় তার মধ্যে সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য হল কোরিওলিস বল। পৃথিবীর নিজ অক্ষের চারদিকে আবর্তনের ফলে যে শক্তি উৎপন্ন হয়, তাকে বলে কোরিওলিস শক্তি। বায়ু সাধারণত বায়ুচাপের ঢালের সমকওনে প্রবাহিত হয় কিন্তু প্রবাহকালে কোরিওলিস বলের প্রভাবে সমকোনে প্রবাহিত না হয়ে কিছুটা বিক্ষিপ্ত হয়। ফেরেলের সূত্র অনুসারে বায়ু উত্তর গোলার্ধে ডান দিকে ও দক্ষিন গোলার্ধে বাঁ দিকে বাঁক নেয়। প্রবাহ কালে কোরিওলিস বলের প্রভাবে বায়ু কতটা  বিক্ষিপ্ত হবে তা নির্ভর করে বায়ুর গতিবেগ ও উক্ত অঞ্চলটির অক্ষাংশীয় অবস্থানের উপর।

৩. ভূ-কেন্দ্রাতিগ শক্তি (Centrifugal force): বায়ুপ বক্রপথে অগ্রসর হলে বায়ুর উপর কেন্দ্রাতিক শক্তির প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। ভূকেন্দ্রাতিক বলের প্রভাবে উত্তর গোলার্ধে উচ্চচাপের বায়ু ঘড়ির কাঁটার অনুক্রমে এবং নিম্নচাপের বায়ু ঘড়ির কাঁটার বিপরীতক্রমে প্রবাহিত হয়। দক্ষিন গোলার্ধে এর বিপরীত অবস্থা পরিলক্ষিত হয়। ১৮৫৭ খ্রিষ্টাব্দে ওলন্দাজ আবহবিদ বাইস ব্যালট বায়ুচাপ ও বায়ুপ্রবাহের মধ্যে উক্ত সম্পর্ক আবিষ্কার করেন। তাঁর মতে, উত্তর গোলার্ধে প্রবাহের দিকে পিছন ফিরে দাঁড়ালে ডানদিকের বায়ুর তুলনায় বাঁ  দিকের বায়ু চাপ কম হয়। দক্ষিন গোলার্ধে ঠিক এর বিপরীত ঘটবে। একে বিজ্ঞানীর নাম অনুসারে বাইস ব্যালট সূত্র বলে।

৪. ঘর্ষন জনিত প্রভাব (Frictional Force):  বায়ু প্রবাহ কালে নিম্নস্তরে ভূপৃষ্টের ঘর্ষনের প্রভাবে পড়ে। ঘর্ষনের প্রভাবে ভূ-পৃষ্টস্থ বায়ু উচ্চচাপ অঞ্চল থেকে নিম্নচাপ অঞ্চলের দিকে প্রবাহ কালে সামান্য কোনাকুনি ভাবে প্রভাবিত হয়। বায়ুর গতিবেগও অনেকটা হ্রাস পায়।

Leave a Comment