ইনসেলবার্জ কী? ইনসেলবার্জ বলতে কী বোঝো?ইনসেলবার্জ – Inselberg

ইনসেলবার্জ কী? ইনসেলবার্জ বলতে কী বোঝো?

ইনসেলবার্জ: মরু অঞ্চলে বায়ুর ক্ষয়কার্যের ফলে সৃষ্ট খাড়া পার্শ্বদেশ ও প্রায় সমতল বা গোলাকার শিখরদেশ বিশিষ্ট কঠিন শিলায় গঠিত বিচ্ছিন্ন দ্বীপের ন্যায় অবশিষ্ট বা ক্ষয়ীভূত পাহাড়কে ইনসেলবার্জ বলে।

নামকরণ: ১৯২৬ খ্রীঃ ভূবিজ্ঞানী পাসার্জ মরুভুমির মাঝে অবস্থিত বিচ্ছিন্ন দ্বীপের ন্যায় অবশিষ্ট বা ক্ষয়ীভূত পাহাড়কে ইনসেলবার্জ বলে অভিহিত করেছেন।

ইনসেলবার্জ কিভাবে সৃষ্টি হয়?

উৎপত্তি: বেলেপাথর এবং গ্রানাইট, নিস বা কংগ্লোমারেট দ্বারা গঠিত মরু অঞ্চলে বায়ুর অবঘর্ষ ও অপসারণ প্রক্রিয়ায় ক্ষয়কার্যের ফলে ক্ষয়চক্রের বার্ধক্য পর্যায়ে কোমল বেলেপাথর ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে পেডিমেন্ট বা মরু সমভূমি তে পরিণত হয় এবং অপেক্ষাকৃত কঠিন গ্রানাইট, নিস বা কংগ্লোমারেট দ্বারা গঠিত অংশগুলি ক্ষয় প্রতিরোধ করে ওই মরু সমভূমির উপর বিচ্ছিন্ন দ্বীপের ন্যায় অবশিষ্ট পর্বত বা ইনসেলবার্জ রূপে অবস্থান করে।

ইনসেলবার্জ এর বৈশিষ্ট্য:

১)ইনসেলবার্জ গ্রানাইট, নিস বা কংগ্লোমারেট শিলা দ্বারা গঠিত ।

২)মরু অঞ্চলে বায়ুর অবঘর্ষ ও অপসারণ প্রক্রিয়ায় ক্ষয়কার্যের ফলে ইনসেলবার্জ সৃষ্টি হয়।

৩)ইনসেলবার্জের পার্শ্বদেশ মসৃণ ও খাড়াই এবং শীর্ষদেশ গোলাকার বা গম্বুজাকার হয়।

৪)মরু সমভূমি বা পেডিমেন্টের মাঝে ইনসেলবার্জগুলি বিচ্ছিন্ন দ্বীপের ন্যায় অবস্থান করে।

৫)ক্ষুদ্রাকৃতির ইনসেলবার্জকে ‘টর’ এবং বৃহদাকৃতির ইনসেলবার্জকে ‘কোপিস’ বলা হয়।

উদাহরণ: আফ্রিকার সাহারা ও কালাহারি মরুভুমিতে এই ধরণের ভূমিরূপ দেখা যায়।

Leave a Comment