ভারতের নগরায়নের বৈশিষ্ট্য

ভারতের নগরায়নের বৈশিষ্ট্য: 2011 সালের জনগণনা অনুসারে বর্তমানে ভারতে প্রায় 37.7 কোটি মানুষ শহর বা নগরে বসবাস করে, যা ভারতের মোট জনসংখ্যার প্রায় 31.16%। ভারতে এই নগরায়নের ইতিহাস পুরাতন, সিন্ধু সভ্যতার সময় থেকে ভারতে নগরায়নের সূচনা হয় এবং বর্তমান সময়ে যা আরো দ্রুত হারে ঘটে চলেছে। ভারতে নগরায়নের বেশ কিছু বৈশিষ্ট্য পরিলক্ষিত হয়। সেই বৈশিষ্ট্য গুলি সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা করা হলো। ভারতে নগরায়নের বৈশিষ্ট্য গুলি হল

1. ভারতে নগরায়নের হার ছোট শহর গুলির তুলনায় বৃহৎ মেট্রোপলিটন নগর, ক্লাস 1 শ্রেণীর শহর গুলিতে সবচেয়ে বেশি ।

2. গ্রামাঞ্চল থেকে শহর মুখী পরিব্রাজন ভারতে নগরায়নের অন্যতম কারণ। গ্রাম থেকে আসা বিপুল জনসংখ্যার চাপ, দারিদ্রতা, বেকারত্ব ই ছিল ভারতে নগরায়নের অন্যতম কারণ। 

3. ভারতে নগরায়নের ইতিহাস বহু পুরাতন। প্রায় প্রাচীন কাল থেকেই ভারতে নদী কেন্দ্রিক নগর ব্যবস্থার বিকাশ ঘটতে দেখা যায়। 

4. ভারতে নগরায়ণ মূলত তৃতীয় শ্রেণীর অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ যেমন – প্রশাসনিক শহর, রাজধানী কে কেন্দ্র করেই সৃষ্টি হয়েছে। ভারতে নগরায়নের ক্ষেত্রে শিল্প ক্ষেত্রের প্রভাব তেমন একটা লক্ষ্য করা যায়। অন্য ভাবে বলা যায় ভারতে যে হারে নগরায়ন হয়েছে ঠিক একই ভারতে শিল্পের বিকাশ ঘটেনি, যার জন্য ভারতীয় নগর শহর গুলিতে নানারূপ আর্থ সামাজিক সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

5. উত্তর ও পূর্ব ভারতের তুলনায় দক্ষিণ ও পশ্চিম ভারতে নগরায়নের পরিমাণ বেশি।

6. কর্ম সংস্থানের আশায় বিপুল সংখ্যক মানুষ গ্রামাঞ্চল থেকে শহরে এসে ভিড় করে, যা অনেক সময় উক্ত শহর বা নগরের ধারণ ক্ষমতার থেকে অনেক বেশি হয়। যার ফল স্বরূপ অনেকেই বেকার হয়ে মূল শহরের পারিপার্শ্বিক অঞ্চলে বস্তি সৃষ্টি করে বসতি গড়ে তোলা। তাই বস্তি বা Slum ভারতীয় শহরের অন্যতম বৈশিষ্ট্য পরিণত হয়েছে। 

7. ভারতে নগরায়নের হার সবসময় একই রকম ছিল না। যেমন বিংশ শতাব্দীর শুরুতে ভারতে নগরায়নের হার ছিল খুবই ধীর, কারণ এই সময় ভারতে দুর্ভিক্ষ ও মহামারীর প্রকোপ দেখা যায়। কিন্তু 1931 সালের পর থেকে ভারতে দ্রুত নগরায়ন ঘটতে থাকে। 

Leave a Comment