মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ প্রশ্ন উত্তর

মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ প্রশ্ন উত্তর: প্রতিবছর বিভিন্ন সরকারি চাকরির পরীক্ষায় মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ PDF থেকে অনেক প্রশ্ন আসে। তাই আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ PDF

নিচে মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ PDF টি যত্নসহকারে পড়ুন ও জ্ঞানভাণ্ডার বৃদ্ধি করুন। মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ PDF টি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে এই পোস্টটির নীচে যান এবং ডাউনলোড করুন।

মধ্যযুগের ভারতের ইতিহাস MCQ প্রশ্ন উত্তর

১. কোন তুর্কী সুলতান ইকতা ব্যবস্থা প্রবর্তন করেন?

(a) ইলতুৎমিস ✓✓

(b) মুহাম্মদ বিন তুঘলক 

(c) বলবন 

(d) আলাউদ্দিন খলজি

Note: আকরিক অর্থে ইকতা বলতে ‘অংশ’ বা ‘ভাগকে’ বোঝায়। মধ্য এশিয়ায় এই ইকতা প্রথা প্রথমে চালু ছিল।

২. তরাইনের দ্বিতীয় যুদ্ধে পৃথ্বীরাজ চৌহান কার কাছে পরাজিত হন? 

(a) মুহাম্মদ ঘুরী ✓✓

(b) কুতুবউদ্দিন আইবক 

(c) মামুদ গজনী 

(d) ইলদুজ

Note: ১১৯১ খ্রিস্টাব্দে মুহাম্মদ ঘুরী ও পৃথ্বীরাজ চৌহানের মধ্যে তরাইনের প্রথম যুদ্ধ হয়েছিল। এই যুদ্ধে পৃথ্বীরাজ চৌহান জয়লাভ করেন। কিন্তু ১১৯২ খ্রিস্টাব্দে তরাইনের দ্বিতীয় যুদ্ধে পৃথ্বীরাজ চৌহান মুহাম্মদ ঘুরীর কাছে পরাজিত ও নিহত হন।

৩. দিল্লির কোন সুলতান প্রথম ‘জিজিয়া কর’ প্রবর্তন করেন?

(a) কুতুবউদ্দিন আইবক ✓✓

(b) মুহাম্মদ বিন তুঘলক

(c) ফিরোজ শাহ তুঘলক

(d) ইলতুৎমিস

Note: ‘জিজিয়া’ হল একপ্রকার ধর্মকর। অ-মুসলমানদের উপর এই কর ধার্য করা হত। মুসলিম রাষ্ট্রে বসবাসকারী অ-মুসলমানদের জীবন, সম্পত্তি ও ধর্মস্থাপনের জন্য এই কর দিতে হত। সিন্ধুতে প্রথম জিজিয়া কর চালু করেন মুহাম্মদ বিন কাশিম।

৪. লোদী বংশ কে প্রতিষ্ঠা করেন?

(a) বহলুল লোদী ✓✓

(b) ইব্রাহিম লোদী 

(c) সিকন্দর লোদী

(d) দৌলত খাঁ লোদী

Note: লোদী বংশের প্রতিষ্ঠাতা হলেন বহলুল লোদী। লোদী বংশের সময়কাল ১৪৫১-১৫২৬ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত। লোদী বংশের শ্রেষ্ঠ সুলতান ইব্রাহিম লোদী।

৫. সুলতানি যুগের আকবর কাকে বলা হয়?

(a) ফিরোজ শাহ তুঘলক ✓✓

(b) আলাউদ্দিন খলজি 

(c) ইলতুৎমিস 

(d) মুহাম্মদ বিন তুঘলক

Note: তাঁকে সুলতানি যুগের আকবর বলেছেন ঐতিহাসিক হেনরী এলিয়ট। ফিরোজ শাহ তুঘলকের সিংহাসন আরোহণ প্রমাণ করে রক্তের দাবী অপেক্ষা যোগ্যতার দাবি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

৬. ইবন বতুতা কোন সম্রাটের শাসনকালে ভারতে আসেন?

(a) মুহাম্মদ বিন তুঘলক ✓✓

(b) শেরশাহ 

(c) আলাউদ্দিন খিলজি 

(d) আকবর

৭. বিজয়নগর রাজ্যের রাজধানীর নাম কি ছিল?

(a) হাম্পি ✓✓

(b) বিজাপুর 

(c) মাইশোর 

(d) কাঞ্চিপুরম

Note: হাম্পি নগরী কর্ণাটক রাজ্যে তুঙ্গভদ্রা নদীর দক্ষিণ তীরে অবস্থিত। হরিহর ও বুক্কা ছিলেন বিজয়নগর রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা। বিজয়নগর সাম্রাজ্যের শ্রেষ্ঠ রাজা ছিলেন কৃষ্ণদেব রায়।

৮. বিখ্যাত গোলকুণ্ডা দুর্গটি কোন রাজ্যে অবস্থিত?

(a) তেলেঙ্গানা ✓✓

(b) কর্নাটক 

(c) মধ্যপ্রদেশ 

(d) বিহার

Note: কাকতীয় শাসনকালে এই দুর্গটি নির্মিত হয়। এটি কুতুবশাহী বংশের রাজধানী ছিল।

৯. ‘তালিকোটার যুদ্ধ’ কত খ্রিস্টাব্দে সংগঠিত হয়?

(a) ১৫৬৫ খ্রিস্টাব্দে ✓✓

(b) ১৫২৬ খ্রিস্টাব্দে 

(c) ১৫৫৬ খ্রিস্টাব্দে 

(d) ১৫৭১ খ্রিস্টাব্দে

Note: ১৫৬৫ খ্রিস্টাব্দে ২৩ শে জানুয়ারি তালিকোটার যুদ্ধ হয়েছিল। বিজয়নগরের সম্রাট রামরায়ের রাজত্বকালে বাহমনি রাজ্যের উত্তরসূরী পাঁচটি সুলতানি রাজ্য (আহম্মদনগর, বিজাপুর, বেরার, গোলকুণ্ডা, বিদর) জোট বেঁধে বিজয়নগর আক্রমণ করে। ১৫৬৫ খ্রিস্টাব্দে ২৩ শে জানুয়ারি তালিকোটার যুদ্ধে পাঁচটি সুলতানের মিলিত শক্তির কাছে রাম রায়ের নেতৃত্বে বিজয়নগর বাহিনী ধ্বংস হয় এবং এই যুদ্ধে রামরায় নিহত হন। এই যুদ্ধ ‘রাক্ষসতঙ্গড়ি’ বা ‘বানিহাটির’ যুদ্ধ নামেও পরিচিত।

১০. বাংলাতে কে আদিনা মসজিদ নির্মাণ করেন?

(a) সিকান্দার শাহ ✓✓

(b) মামুদ শাহ 

(c) ইলিয়াস শাহ 

(d) আজম শাহ

Note: ইলিয়াস শাহের পর সিকান্দার শাহ বাংলার সিংহাসনে বসেন। তিনি ১৩৬৪ খ্রিস্টাব্দে বিখ্যাত আদিনা মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন।

১১. বাংলার শেষ স্বাধীন সুলতান কে ছিলেন?

(a) গিয়াসউদ্দিন মামুদ শাহ ✓✓

(b) গিয়াসউদ্দিন আজম শাহ 

(c) সামসউদ্দিন ইলিয়াস শাহ 

(d) রুকুনউদ্দিন বারবক শাহ

Note: হোসেন শাহি বংশের সম্রাট নসরৎ শাহের মৃত্যুর পর তাঁর পুত্র গিয়াসউদ্দিন মামুদ শাহ (১৫৩৩-৩৮ খ্রিঃ) সিংহাসন দখল করেন। ১৫৩৮ খ্রিস্টাব্দ নাগাদ শেরশাহ বাংলা আক্রমণ করেন। এতে গিয়াসউদ্দিন সিংহাসন চ্যুত হয় ও হোসেন শাহ বংশের পতন হয়।

১২. মহম্মদ আদিল শাহের গোল গম্বুজ কোথায় অবস্থিত?

(a) বিজাপুর ✓✓

(b) দিল্লি 

(c) আগ্রা 

(d) এলাহাবাদ

Note: গোল গম্বুজ ভারতের বৃহত্তম গম্বুজ। এটি কর্নাটকের বিজাপুরে অবস্থিত। ১৬২৬ খ্রিস্টাব্দে এর নির্মাণ কাজ শুরু হয় এবং ১৬৫৬ খ্রিস্টাব্দে নির্মাণ কাজ শেষ হয়।

১৩. ‘জনম সখী’ কার আত্মজীবনী?

(a) গুরু নানক ✓✓

(b) গুরু হরগোবিন্দ সিং 

(c) গুরু তেগবাহাদুর 

(d) গুরু অর্জুনদেব

Note: শিখ ধর্মের প্রবর্তক গুরুনানক ছিলেন মধ্যযুগের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ধর্মপ্রচারক। লাহোরের তালবন্দি গ্রামে ১৪৬৯ খ্রিস্টাব্দে ক্ষত্রিয় পরিবারে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর শিষ্যরা ‘শিখ’ নামে পরিচিত। শিখদের ধর্মগ্রন্থের নাম গ্রন্থসাহেব।

১৪. কোন শিখ গুরু খালসা প্রথার প্রবর্তন করেন?

(a) গুরু গোবিন্দ সিং ✓✓

(b) গুরু অর্জুন দেব 

(c) গুরু তেগ বাহাদুর 

(d) গুরুনানক দেব

Note: গুরু তেগবাহাদুরের পুত্র গোবিন্দ সিং দশম গুরুর পদ লাভ করেন। গুরু গোবিন্দ সিং ১৬৯৯ খ্রিস্টাব্দে খালসা বা সামরিক ভাতৃসংঘ প্রতিষ্ঠা করেন এবং পাঞ্জাবের পার্বত্য অঞ্চলে শিখরাজ্য স্থাপনের পরিকল্পনা করেন।

১৫. রামচরিতমানস-এর রচয়িতা হলেন —

(a) তুলসীদাস ✓✓

(b) জয়দেব 

(c) কালিদাস 

(d) হরিসেন

Note: তুলসীদাস মুঘল সম্রাট আকবরের সমসাময়িক ছিলেন। রামানন্দের শিষ্য নরহরিদাসের কাছে তুলসীদাস ভক্তিবাদের দীক্ষা গ্রহণ করেছিলেন।

16. ‘Grand Trunk Road’ কে নির্মাণ করেছিলেন?(a) শেরশাহ ✓✓

(b) আকবর 

(c) অশোক 

(d) সমুদ্রগুপ্ত

Note: ‘Grand Trunk Road’ নির্মাণ করেছিলেন শেরশাহ। এটি ‘সড়ক-ই-আজম’ নামেও পরিচিত। এর দৈর্ঘ্য 2,400 কিমি। সিন্ধু থেকে ঢাকার সোনারগাঁও পর্যন্ত এটি বিস্তৃত ছিল।

১৭. কত সালে বাবর মুঘল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেছিলেন?

(a) ১৫২৬ সালে ✓✓

(b) ১৫৭৮ সালে 

(c) ১৬৩৪ সালে 

(d) ১৬৯৩ সালে

Note: দিল্লির সন্নিকটে (বর্তমান হরিয়ানায়) পানিপথের প্রান্তরে সুলতান ইব্রাহিম লোদী ও বাবরের মধ্যে যুদ্ধ হয়। এই যুদ্ধ পানিপথের প্রথম যুদ্ধ (২১ মে ১৫২৬) নামে পরিচিত। এই যুদ্ধে বাবর জয়লাভ করেন এবং জয়লাভের পরেই বাবর দিল্লি ও আগ্রা দখল করেন। নিজেকে ‘দিল্লির বাদশা’ বলে ঘোষণা করেন এবং মসজিদে নিজের নামে ‘খুৎবা’ পাঠ করান।

১৮. ‘হুমায়ুননামা’ কে রচনা করেছিলেন?

(a) গুলবদন বেগম ✓✓

(b) আবুল ফজল 

(c) হামিদাবানু বেগম 

(d) কাফির খাঁ

Note: ‘হুমায়ুননামা’ গুলবদন বেগমের রচিত একটি গ্রন্থ। যা থেকে হুমায়ুনের জীবন বৃত্তান্ত জানা যায়। ১৯০২ খ্রিস্টাব্দে এই গ্রন্থটি প্রথম প্রকাশ পায়।

১৯. কোন মুঘল শাসক মুঘল রাজধানী আগ্রা থেকে দিল্লিতে স্থানান্তরিত করেন?

(a) শাহজাহান ✓✓

(b) ঔরঙ্গজেব 

(c) জাহাঙ্গীর 

(d) বাহাদুর শাহ

Note: শাহজাহান আগ্রাতে শিসমহল নির্মাণ করেন। ১৬৪৮ খ্রিস্টাব্দ থেকে দিল্লির ‘লালকেল্লা’ ছিল পরবর্তী দুই শতক ধরে মুঘল শাসনের কেন্দ্রস্থল।

২০. ১৭৬১ সালে পানিপথের যুদ্ধে কে পরাজিত হয়?

(a) মারাঠা ✓✓

(b) নাদির শাহ 

(c) আহমেদ শাহ আবদালী 

(d) ইংরেজ কোম্পানি

Note: ১৭৬১ খ্রিস্টাব্দে মারাঠা বাহিনী ও আফগানিস্তানের সম্রাট আহম্মদ শাহ আবদালীর মধ্যে পানিপথের তৃতীয় যুদ্ধ হয়েছিল। এই যুদ্ধে মারাঠা বাহিনী আফগানিস্তানের সম্রাট আহম্মদ শাহ আবদালীর হাতে পরাস্ত হয়। মারাঠাদের পরাজয়ে বালাজী বাজীরাও ভগ্ন হৃদয়ে ১৭৬১ খ্রিস্টাব্দের ২৩ শে জুন মারা যান।

২১. ইংরেজ ইস্ট-ইন্ডিয়া কোম্পানি কার কাছ হতে ‘সনদ’ লাভ করেছিল?

(a) রানী এলিজাবেথ ✓✓

(b) রানি ভিক্টোরিয়া 

(c) প্রথম চার্লস 

(d) প্রথম জেমস

Note: লন্ডনে গঠিত ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি মহারানী এলিজাবেথের কাছ থেকে ১৫ বছরের জন্য প্রাচ্যদেশে বাণিজ্যের অধিকার পায়। ইংল্যান্ডের রাজা প্রথম জেমসের দূত হিসেবে স্যার টমাস রো ১৬১৫ সালে মোগল দরবারে জাহাঙ্গীরের আমলে আসেন।

২২. ভাস্কো-দা-গামা ভারতে প্রথম কোন বন্দরে পা দেয়?

(a) কালিকট ✓✓

(b) কোচিন 

(c) গোয়া 

(d) সুরাট

Note: ১৪৯৮ খ্রিস্টাব্দে দক্ষিণ ভারতের কালিকট বন্দরে পোর্তুগিজ নাবিক ভাস্কো-দা-গামার আগমনের পর থেকে ভারতে পোর্তুগিজদের বাণিজ্যের সূচনা হয়। পশ্চিম ভারতে ইংরেজদের প্রধান বাণিজ্য কেন্দ্র ছিল সুরাট ।

২৩. বুলন্দ দরওয়াজা কার আমলে নির্মিত হয়?

(a) আকবর ✓✓

(b) শাহজাহান 

(c) ইব্রাহিম লোদী 

(d) ঔরঙ্গজেব

Note: আকবর দাক্ষিণাত্য বিজয়ের স্মারক হিসাবে ১৬০২ খ্রিস্টাব্দে ফতেপুর সিক্রিতে ‘বুলন্দ দরওয়াজা’ নির্মাণ করেন। এটি ভূ-পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১৭৬ ফুট উঁচু। এটি রক্তাভ বেলেপাথরে তৈরি।

২৪. দিল্লির মোতি মসজিদ কোন মুঘল শাসক নির্মাণ করেন?

(a) ঔরঙ্গজেব ✓✓

(b) হুমায়ুন 

(c) আকবর 

(d) শাহজাহান

Note: ঔরঙ্গজেব আনুমানিক ১৬৫৯-১৬৬০ খ্রিস্টাব্দে দিল্লির মোতি মসজিদ নির্মাণ করে। শাহজাহান আগ্রার মোতি মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন।

২৫. কোথায় হরমন্দির সাহিব নামক স্বর্ণমন্দিরটি অবস্থিত?

(a) অমৃতসর ✓✓

(b) জলন্ধর 

(c) পাতিয়ালা 

(d) লুধিয়ানা

Note: হরমন্দির সাহিব বা স্বর্ণমন্দির অমৃতসরে অবস্থিত। এটি শিকদের পবিত্র তীর্থস্থান। গুরু রামদাস মোগল সম্রাট আকবরের সংস্পর্শে আসেন। ধর্মতত্ত্বে তাঁর গভীরতা, ত্যাগ ও কৃচ্ছ্রতায় মুগ্ধ হয়ে আকবর অমৃতসরের একটি পুষ্করিণীসহ কিছু জমি তাঁকে দান করেন। রামদাস এইস্থানে অমৃতসরের বিখ্যাত স্বর্ণমন্দির অর্থাৎ হরমন্দির সাহিব প্রতিষ্ঠা করেন।

Leave a Comment