ভারতের কার্পাস বয়ন শিল্পের সমস্যাগুলি সমাধানের জন্য কি কি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে?

ভারতের কার্পাস বয়ন শিল্পের সমস্যাগুলি সমাধানের জন্য কি কি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে?: কার্পাস বয়ন শিল্প হলো ভারতের একটি প্রাচীন শিল্প। অতীতকাল থেকেই এই শিল্প ভারতীয় অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেও বর্তমানে বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে। এই সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠে এ দেশের কার্পাস বয়ন শিল্পের অতীত গৌরব ফিরিয়ে আনার জন্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সেগুলি হল-

১)কাঁচামালের নিয়মিত সরবরাহ: ভারতের কার্পাস বয়ন শিল্প কেন্দ্রগুলিতে কাঁচামালের নিয়মিত সরবরাহ বজায় রাখার জন্য ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড ইত্যাদি দেশ থেকে উন্নত মানের কাঁচা তুলা আমদানি করা হচ্ছে।

২)শিল্পের আধুনিকীকরণ: পুরানো যন্ত্রপাতির পরিবর্তন করে বর্তমানে ভারত বেশকিছু কার্পাস বয়ন শিল্প কারখানার আধুনিকীকরণ করার জন্য উদ্যোগী হয়েছে। এই উদ্দেশ্যে 1986 সালের 750 কোটি টাকা খরচ করে “বয়ন আধুনিকীকরণ ভান্ডার” গড়ে তোলা হয়েছে।

৩)মিশ্র বস্ত্র উৎপাদন: বর্তমানে মিশ্র বস্ত্রের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় কার্পাস বস্ত্রের সঙ্গে রেয়ন, নাইলন, পলিয়েস্টার, টেরিলিন ইত্যাদি মিশিয়ে মিশ্র বস্ত্র উৎপাদন করা হচ্ছে।

৪)অন্তঃশুল্ক হ্রাস: ভারত সরকার “জোশি কমিটি” ও “হেনি কমিটি”র সুপারিশ অনুযায়ী কার্পাস বস্ত্রের উপর থেকে অন্তঃশুল্ক হ্রাস করেছে।

৫)নতুন বস্ত্রনীতি: 1985 সালে ভারত সরকার কর্তৃক ঘোষিত নতুন বস্ত্রনীতিতে এই শিল্পের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য একাধিক ইতিবাচক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

৬)জাতীয় বয়ন নিয়ম গঠন: 1968 সালে ভারত সরকার রুগ্ন শিল্পের পুনরুজ্জীবনের মাধ্যমে কার্পাস বস্ত্রের উৎপাদন বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে জাতীয় বয়ন নিগম নামে একটি সংস্থা গঠন করেছে।

৭)গবেষণাগার স্থাপন: শক্তি সম্পদ উৎপাদন ও সংরক্ষণ, কার্পাস বস্ত্রের উৎকর্ষতা বৃদ্ধি, সুতোর স্থায়িত্ব বৃদ্ধি ইত্যাদির মাধ্যমে ভারতের কার্পাস বয়ন শিল্পের উন্নতির জন্য “আমেদাবাদ টেক্সটাইল রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন”, “মুম্বাই টেক্সটাইল রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন “, “সাউথ ইন্ডিয়ান টেক্সটাইল রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন”, নর্থ ইন্ডিয়ান টেক্সটাইল রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন” ইত্যাদি গবেষণাগার স্থাপন করা হয়েছে।

৮)রপ্তানি উন্নয়ন সংস্থা গঠন: কার্পাস বস্ত্রের রপ্তানি বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে “কার্পাস বস্ত্র রপ্তানি উন্নয়ন সংস্থা” গঠন করা হয়েছে।

Leave a Comment