ভারতীয় কৃষিতে জলসেচের প্রয়োজনীয়তা

ভারতীয় কৃষিতে জলসেচের প্রয়োজনীয়তা: কৃষিজমি ও ফসল উৎপাদনের পরিমান বৃদ্ধি, দোফসলি ও বহুফসলি চাষের পরিমান বৃদ্ধির জন্য ভারতে জলসেচের ভূমিকা বেশ গুরুত্বপূর্ন । কোনো নির্দিস্ট জমিতে অধিক পরিমানে ফসল উৎপাদনের জন্য সঠিক সময়ে প্রয়োজনমতো কৃত্রিমভাবে জল সরবরাহ কে জলসেচ বলা হয়। বর্তমানে ভারতের মোট জমির ৪৬% জলসেচের অন্তর্ভুক্ত। ভারতে সেচসেবিত জমির পরিমান পৃথিবীর মধ্যে সবথেকে বেশি। তবুও ভারতের মতো কৃষিপ্রধান দেশে কৃষিকাজের উন্নতির জন্য জলসেচের প্রয়োজনীয়তা অত্যন্ত বেশি।

ভারতীয় কৃষিতে জলসেচের প্রয়োজনীয়তা গুলি নিম্নে আলোচনা করা হল:

১. অনিয়মিত বৃষ্টিপাত – ভারতে প্রতিবছর একই রকম বৃষ্টিপাত হয় না, আবার ভারতের মতো বিশাল দেশে সর্বত্র একই পরিমান বৃষ্টি হয় না । যে সকল অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের বৃষ্টিপাতের পরিমান অপর্যাপ্ত ও অনিশ্চিত সেখানে জলসেচ ছাড়া কৃষিকাজ সম্ভব না।

২. স্বল্প বৃষ্টিপাত যুক্ত অঞ্চল – বৃষ্টিহীন ও স্বল্প বৃষ্টিপাতযুক্ত অঞ্চলে জলসেচ ব্যতিরেখে কৃষিকাজ করা সম্ভব নয়।

৩. রবিশস্য চাষ – ভারতে শীতকাল শুষ্ক প্রকৃতির অর্থাৎ এই সময় তেমন একটা বৃষ্টিপাত হয় না বলে, রবিশস্য চাষের জন্য জলসেচ প্রয়োজন।

৪. মাটির জলধারণ ক্ষমতা – ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের মাটির জলধারণ ক্ষমতা বিভিন্ন রকম। যেসব মাটির জলধারণ ক্ষমতা কম সেখানে জলসেচ ছাড়া কৃষিকাজ সম্ভব নয়। যেমন – ল্যাটেরাইট ও লোহিত মৃত্তিকার জলধারণ ক্ষমতা খুবই কম।

৫. আধুনিক কৃষিপদ্ধতির ব্যবহার – সবুজ বিপ্লবের সময় থেকে ভারতে আধুনিক কৃষি পদ্ধতি যেমন উচ্চ ফলনশীল বীজ, রাসায়নিক সার ও কীটনাশকের ব্যবহার বৃদ্ধি পায়। এই উচ্চফলনশীল বীজগুলিতে সঠিক সময়ে জল দেওয়ার ক্ষেত্রে জলসেচ ব্যবস্থার বিকাশ খুবই গুরুত্বপূর্ন।

৬. খাদ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি – ভারত পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ এবং বর্তমানেও জনসংখ্যা প্রচুর পরিমানে বেড়ে চলেছে। এই বিপুর পরিমান জনসংখ্যার চাহিদা মেটানোর জন্য ভারতে কৃষির উৎপাদন বৃদ্ধি খুবই প্রয়োজন, তার জন্য অন্যান্য উপকরনের পাশাপাশি জলসেচের প্রয়োজন।

৭. বানিজ্যিক ফসল উৎপাদন – বিভিন্ন অর্থকরী ফসল যেমন – পাট, তুলো, আখ, রাবার প্রভৃতি ফসল বানিজ্যিক ভাবে উৎপাদনের জন্য জলসেচ ব্যবস্থার সুষ্ঠ বিকাশ সাধন খুবই প্রয়োজন।

৮. বহুফসলি চাষের বিকাশ – ভারতের মতো দেশে বিপুল জনসংখ্যার খাদ্যের চাহিদা মেটাতে বহুফসলি কৃষি ব্যবস্থার বিকাশ খুবই প্রয়োজন আর তার জন্য সঠিক সময় জমিতে জলসেচের প্রয়োজন হয়। কারণ ভারতে সব ঋতুতে সমপরিমান বৃষ্টিপাত হয় না।

Leave a Comment