অক্ষরেখা ও দ্রাঘিমারেখার বৈশিষ্ট্য | Latitude And Longitude Characteristics

অক্ষরেখা ও দ্রাঘিমারেখার বৈশিষ্ট্য | Latitude And Longitude Characteristics

১) অক্ষরেখার বৈশিষ্ট্য

অক্ষরেখা: নিরক্ষরেখার সমান্তরালে পূর্ব-পশ্চিমে কল্পিত রেখা গুলিকে অক্ষরেখা বলে।

অক্ষরেখার বৈশিষ্ট্যগুলি হল:

১) অক্ষরেখাগুলি পরস্পর সমান্তরাল হয়।

২) অক্ষরেখাগুলি পূর্ণবৃত্ত হয়।

৩) অক্ষরেখাগুলি নিরক্ষরেখার সমান্তরালে পূর্ব -পশ্চিমে বিস্তৃত হয়।

৪) অক্ষরেখাগুলির মান মেরুর দিকে ক্রমশ বাড়তে থাকে।

৫) অক্ষরেখাগুলির পরিধি মেরুর দিকে ক্রমশ কমতে থাকে।

৬) অক্ষরেখাগুলিকে ডিগ্রি (°) এককে পরিমাপ করা হয়।

২) দ্রাঘিমারেখার বৈশিষ্ট্য

দ্রাঘিমারেখা: মূলমধ্যরেখা থেকে পূর্ব-পশ্চিমে উত্তর মেরু বিন্দু থেকে দক্ষিণ মেরু বিন্দু পর্যন্ত অঙ্কিত লম্বালম্বি রেখাগুলিকে দ্রাঘিমা রেখা বলে।

এই দ্রাঘিমারেখার বৈশিষ্ট্যগুলি হল:

১) দ্রাঘিমারেখাগুলি মূলমধ্যরেখার পূর্ব-পশ্চিমে উত্তর মেরু থেকে দক্ষিণ মেরু পর্যন্ত অঙ্কিত।

২) দ্রাঘিমারেখাগুলি অর্ধবৃত্ত।

৩) দ্রাঘিমারেখাগুলি পরস্পর সমান্তরাল নয়।

৪) দ্রাঘিমারেখার পরিধি সর্বত্র সমান নয়।

৫) দ্রাঘিমারেখাগুলির পারস্পরিক ব্যবধান একই নয়। দুটি দ্রাঘিমারেখার মধ্যে ব্যবধান নিরক্ষরেখার কাছে সবচেয়ে বেশি এবং নিরক্ষরেখা থেকে মেরুর দিকে এই ব্যবধান ক্রমশ কমতে থাকে।

৬) সর্বোচ্চ দ্রাঘিমারেখার মান 180° এবং সর্বনিম্ন দ্রাঘিমারেখার মান 0°।

৭) প্রতিটি দ্রাঘিমারেখা উত্তর ও দক্ষিণ মেরুতে গিয়ে মিলিত হয়েছে।

Leave a Comment