সাতবাহন বংশ অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর – Satavahana Dynasty Question Answer In Bengali

সাতবাহন বংশ অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর – Satavahana Dynasty Question Answer In Bengali: সাতবাহন সাম্রাজ্য একটি প্রাচীন ভারতীয় সাম্রাজ্য যা খ্রিস্টপূর্ব দ্বিতীয় শতক থেকে পরবর্তী সাড়ে চারশত বছর ধরে দক্ষিণ ভারতে বিস্তৃত ছিল। মৌর্য সাম্রাজ্যের সামন্ত রাজ্য হিসেবে সাতবাহনরা গণ্য হলেও মৌর্য সাম্রাজ্যের পতনের পর শুঙ্গ ও কাণ্ব রাজবংশের সঙ্গে যুদ্ধ করে স্বাধীন রাজ্য হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করে। পরবর্তীকালে তারা পশ্চিমী ক্ষত্রপ রাজ্যের সঙ্গে যুদ্ধে লিপ্ত হয়।

সাতবাহন বংশ অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর – Satavahana Dynasty Question Answer In Bengali

১)সাতবাহন বংশ কে কবে প্রতিষ্ঠা করেন?

উঃ- আনুমানিক 230 খ্রিস্টপূর্বাব্দে, সিমুক।

২) সাতবাহন বংশের রাজারা কোথায় রাজত্ব করতেন?

উঃ- দাক্ষিণাত্য ও মধ্য ভারত (অন্ধ্রপ্রদেশ)।

৩)কোন রাজবংশের রাজাদের পুরাণে অন্ধ ভৃত্য বলা হয়েছে?

উঃ- সাতবাহন রাজাদের।

৪) সাতবাহন রাজাদের আদি বাসস্থান কোথায় ছিল?

উঃ- মহারাষ্ট্র।

৫) দক্ষিণাপথ বলতে কি বোঝো?

উদক্ষিণা পথবিন্ধ্য পর্বত ও তুঙ্গভদ্রা নদীর মধ্যবর্তী স্থলভাগকে দক্ষিণাপথ বলা হয়।

৬) নানাঘাট শিলালিপি কে খোদাই করেন?

উঃ- রানী নয়নিকা।

৭) নানাঘাট শিলালিপি থেকে কোন সাতবাহন রাজার কথা জানা যায়?

উঃ- সাতবাহন রাজা প্রথম সাতকর্ণী।

৮) মাওকাদোনি প্রশস্তি থেকে কোন সাতবাহন রাজার কথা জানা যায়?

উঃ- তৃতীয় পুলবাহন।

৯) প্রথম সাতকর্ণীর স্ত্রীর নাম কি?

উঃ- রানী নয়নিকা।

১০) কোন সাতবাহন রাজা অশ্বমেধ যজ্ঞ ও রাজসূয়ো যজ্ঞ করেছিলেন?

উঃ- প্রথম সাতকর্ণী।

১১) সাতবাহন রাজাদের রাজধানী কোথায় ছিল?

উঃ- পৈঠান বা প্রতিষ্ঠান।

১২)সাতবাহন বংশের রাজত্বকালের একটি গুরুত্বপূর্ণ বন্দরের নাম লেখ।

উঃ- সোপারা।

১৩) সাতবাহন রাজাদের মুদ্রার নাম কি?

উঃ- পোতিন (লেড ) ও কামরপন ( সিলভার)

১৪)সাতবাহন রাজাদের রাজধানী পৈঠান বা প্রতিষ্ঠান বর্তমানে কোথায় অবস্থিত?

উঃ-হায়দ্রাবাদের ঔরঙ্গাবাদ জেলায় গোদাবরী নদীর তীরে।

১৫) কোন গ্রন্থে সাতবাহন বংশের রাজাদের অন্ধ্রদের দস্যু বলা হয়েছে?

উঃ- ঐতরেয় ব্রাহ্মণ।

১৬) কোন সাতবাহন রাজাকে কণ্বদের ভৃত্য বলা হয়?

উঃ- সাতবাহন বংশের প্রতিষ্ঠাতা সিমুককে।

১৭)কোন সাতবাহন রাজাকে পেরিপ্লাসের গ্রন্থে ‘স্যারাগানাস’ বলা হয়েছে?

উঃ- প্রথম সাতকর্ণী।

১৮) প্রথম সাতকর্ণীর মুদ্রার নাম কি?

উঃ- শিরি সত।

১৯)কোন সাতবাহন রাজা ‘অপ্রতিহত চক্র’ ও ‘দক্ষিণাপথপতি’ উপাধি গ্রহণ করেছিলেন?

উঃ- সাতবাহন রাজা প্রথম সাতকর্ণী।

২০) কোন লেখ থেকে প্রথম সাতকর্ণীর ‘অপ্রতিহত চক্র’ ও ‘দক্ষিণাপথপতি’ উপাধি গ্রহণের ইতিহাস জানা যায়?

উঃ- নানাঘাট লেখ।

২১)কোন লেখতে প্রথম সাতকর্ণীকে ‘রাজন শ্রী সাতকর্ণী’ নামে অভিহিত করা হয়েছে?

উঃ-সাঁচি লেখ।

২২) কোন সাতবাহন রাজাকে ‘পশ্চিমের অধিপতি’ বলা হয়?

উঃ- প্রথম সাতকর্ণী।

২৩) কোন সাতবাহন রাজা ‘কবি বৎসল’ উপাধি গ্রহণ করেছিলেন?

উঃ- সাতবাহন রাজা হল।

২৪) “গাথাসপ্তসতী” গ্রন্থটি কে রচনা করেন?

উঃ- সাতবাহন রাজা হল।

২৫) ‘গাথাসপ্তসতী’ গ্রন্থটি কোন ভাষায় লেখা?

উঃ- প্রাকৃত ভাষা।

২৬) ‘বৃহৎকথা’ গ্রন্থটি কে রচনা করেন?

উঃ- গুণাঢ্য।

২৭) ‘বৃহৎকথা’ গ্রন্থটি কোন ভাষায় লেখা?

উঃ- পৈশাচী।

২৮) ‘কথাসরিৎসাগর’ গ্রন্থটি কে রচনা করেন?

উঃ- সোমদেব।

২৯) ‘বৃহৎকথামঞ্জরি’ গ্রন্থটির রচয়িতা কে?

উঃ- ক্ষেমেন্দ্র।

৩০) সাতবাহন বংশের শ্রেষ্ঠ নরপতি কে ছিলেন?

উঃ- গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৩১) নাসিক প্রশস্তি কে খোদাই করেন?

উঃ- গৌতমি বলশ্রী।

৩২) নাসিক প্রশস্তি থেকে কোন সাতবাহন রাজার কথা জানা যায়?

উঃ- গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৩৩) গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী কোন শক রাজাকে পরাজিত করেছিলেন?

উঃ- শক রাজা নহপান।

৩৪)নাসিক প্রশস্তিতে কোন সাতবাহন রাজাকে ‘সাতবাহন – কুল – যশঃ – প্রতিষ্ঠাপনকর’ বলে অভিহিত করা হয়েছে?

উঃ- গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৩৫) গৌতমীপুত্র সাতকর্ণীর পুত্রের নাম কি?

উঃ- পুলুমায়ী।

৩৬) ‘ত্রি সমুদ্র তোয় পীত বাহন’ শব্দের অর্থ কি?

উঃ- তিন সমুদ্রের জলপানকারী সৈন্য।

৩৭)নাসিক প্রশস্তিতে কোন সাতবাহন রাজাকে “শক-যবন-পল্লব-নিসূদন” বলা হয়েছে?

উঃ- গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৩৮) গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী পরাজিত করেন?

উঃ- শকদের কার্দমক শাখার প্রতিষ্ঠাতা চষ্টনের পৌত্র রুদ্রাদামন।

৩৯) কোন গ্রন্থ ও লেখ থেকে গৌতমীপুত্র সাতকর্ণীর রুদ্রদামনের কাছে পরাজয়ের কথা জানা যায়?

উঃ- টলেমির গ্রন্থ ও জুনাগর লেখ থেকে।

৪০)টলেমি গ্রন্থে বর্ণিত চষ্টনের রাজধানী কোথায় ছিল?

উঃ- উজ্জয়িনী।

৪১)টলেমি তার গ্রন্থে কোন স্থানকে সাতবাহন রাজ পুলুমায়ির রাজধানী হিসেবে উল্লেখ করেছেন?

উঃ- প্রতিষ্ঠান।

৪২) বাশিষ্ঠপুত্র সাতকর্ণীর সাথে কোন শক রাজ কন্যার বিবাহ হয়েছিল?

উঃ- রুদ্রদামনের কন্যার সাথে।

৪৩) কোন লেখ থেকে জানা যায় বাশিষ্ঠপুত্র সাতকর্ণীর সাথে শক রাজা রুদ্রদামনের কন্যার বিবাহ হয়েছিল?

উঃ- কানহেরি লেখ।

৪৪) কোন রাজার মুদ্রায় দ্বিমাস্তুল বিশিষ্ট জাহাজের চিত্র পাওয়া গেছে?

উঃ- বাশিষ্ঠ পুত্র পুলুমায়ি।

৪৫)সাতবাহন যুগের দ্বিমাস্তুল বিশিষ্ট জাহাজের চিত্র কোথায় পাওয়া গেছে?

উঃ- করমন্ডল উপকূলে।

৪৬)কোন সাতবাহন রাজা নবনগর নির্মাণ করেন?

উঃ- বাশিষ্ঠ পুত্র পুলুমায়ি।

৪৭)কোন সাতবাহন রাজার মুদ্রায় মস্তকের ছবি অঙ্কিত আছে?

উঃ- যজ্ঞশ্রী সাতকর্ণী।

৪৮) কোন সাতবাহন রাজার মুদ্রায় জাহাজের ছবি অঙ্কিত আছে?

উঃ- যজ্ঞশ্রী সাতকর্ণী।

৪৯)সাতবাহন বংশের শাসন পরিচালনাকারী কর্মচারীদের নাম কি?

উঃ- মহাসেনাপতি ও মহা তালেবর

৫০) সাতবাহন বংশের রাজত্বকালে সরকারি ভাষা কি ছিল?

উঃ- প্রাকৃত ভাষা।

৫১) প্রবন্ধ চিন্তামণি গ্রন্থটির রচয়িতা কে?

উঃ- মেরুতুঙ্গ।

৫২) সাতবাহনদের দ্বিতীয় রাজধানী কোথায় ছিল?

উঃ- জুন্নার।

৫৩) কোন লেখা থেকে জানা যায় যে পুলুমায়ির রাজত্বকালে জনৈক গৃহস্থ একটি জলাধার নির্মাণ করেন?

উঃ- ম্যাকদানি লেখ।

৫৪) সাতবাহনদের প্রথম রাজধানী কোথায় ছিল?

উঃ- অমরাবতী।

৫৫) নাসিক প্রশস্তিতে কাকে ‘একব্রাহ্মণ’ বলে অভিহিত করা হয়েছে?

উঃ- গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৫৬) সাতবাহন বংশের রাজত্বকালের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ চৈত্যটির নাম কি?

উঃ- কারলে।

৫৭) সাতবাহন যুগে জেলাকে কি বলা হত?

উঃ- আহার।

৫৮) সাতবাহন যুগে জেলার শাসককে কি বলা হত?

উঃ- অমাত্য ও মহামাত্র।

৫৯) সাতবাহন যুগে কোন লিপি ব্যবহার করা হতো?

উঃ- ব্রাহ্মী লিপি।

৬০) বাণভট কাকে ‘সমুদ্রাধিপতি’ বলে অভিহিত করেছেন?

উঃ- যজ্ঞশ্রী সাতকর্ণীকে।

৬১) কোন গ্রন্থে সাতবাহন রাজা হলের বিবাহ সম্পর্কিত বর্ণনা আছে?

উঃ- লীলাবতীর পরিনয়ম।

৬২) সাতবাহন রাজারা কোন ধর্মাবলম্বী ছিলেন?

উঃ- বৈদিক হিন্দু ও বৌদ্ধ।

৬৩) সাতবাহন রাজাদের রাজত্বকালে হিন্দু মন্দির সংলগ্ন মহাবিদ্যালয়কে কি বলা হত?

উঃ- ঘট্টিকা।

৬৪) মাওকাদনি প্রশস্তি থেকে কোন সাতবাহন রাজার কথা জানা যায়?

উঃ- তৃতীয় পুলবাহন।

৬৫) নাগার্জুন কোথায় জন্মগ্রহণ করেন?

উঃ- বিদর্ভ।

৬৬) কোন শিলালেখ থেকে জানা যায় শকরাজাদের সাথে সাতবাহন রাজাদের বৈবাহিক সম্পর্ক ছিল না?

উঃ- কানহেরি।

৬৭) সাতবাহন রাজাদের আমলে গ্রামের প্রধানকে কি বলা হত?

উঃ- গ্রামিকা।

৬৮) নাসিক, কানহেরি ও কারলে গুহা কোন রাজাদের আমলে নির্মিত হয়?

উঃ- সাতবাহন।

৬৯) কোন সাতবাহন রাজা একাব্রাহ্মণা উপাধি গ্রহণ করেছিলেন?

উঃ- গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী।

৭০) প্রাচীন ভারতের কোন রাজবংশ প্রথম ভূমিদান প্রথা চালু করেছিল?

উঃ- সাতবাহন রাজবংশ।

৭১) কোন পুরাণ থেকে সাতবাহন রাজবংশের কথা জানা যায়?

উঃ- মৎস্য পুরাণ।

৭২) কোন রাজবংশকে দক্ষিণ ভারতের বৈদিক ধর্মের বা ব্রাহ্মণ্যধর্মের পতাকা বাহক বলা হয়?

উঃ- সাতবাহন রাজবংশকে।

৭৩) কোন রাজবংশের রাজারা মুদ্রায় নিজেদের মূর্তি খোদাই করতেন?

উঃ- সাতবাহনরা।

৭৪) সাতবাহন রাজাদের মুদ্রায় কোন কোন ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে?

উঃ-একদিকে প্রাকৃত এবং অন্যদিকে কন্নোড় ও তেলেগু।

৭৫) কোন রাজবংশের রাজত্বকালে অমরাবতী স্তুপ নির্মিত হয়?

উঃ- সাতবাহন রাজবংশ।

৭৬)সাতবাহন রাজাদের রাজত্বকালের দুটি গুরুত্বপূর্ণ সংস্কৃতি কেন্দ্রের নাম লেখো।

উঃ- নাগার্জুনকোণ্ডা ও অমরাবতী।

৭৭) বেসনগর লেখ কে খোদাই করেন?

উঃ- শূঙ্গরাজা ভগভদ্র।

৭৮) গৌতমীপুত্র সাতকর্ণী কাদের সম্পর্কে ত্রি -সমুদ্র – তোয় পীতবাহন কথাটি উল্লেখ করেছেন?

উঃ- তাঁর সৈন্য দল সম্পর্কে।

Leave a Comment