জায়গিরদার প্রথা কী? – What is the Jagirdari System

জায়গিরদার প্রথা কী? – What is the Jagirdari System

জায়গিরদার প্রথা:

আকবরের পূর্বে সামরিক বিভাগের পদস্থ কর্মচারীদের নগদ টাকার বেতনের পরিবর্তে নির্দিষ্ট পরিমাণ জমির ভূমি-রাজস্ব অর্থাৎ জায়গীর প্রদান করা হত। জায়গীরের আয় দ্বারা তারা ব্যয় নির্বাহ করতো এবং নির্দিষ্ট সংখ্যক সৈন্য ওই আয় থেকে নিযুক্ত করা হত।

জায়গিরদার প্রথা কখনই বংশানুক্রমিক ছিল না এবং কোন জায়গিরদারই তাঁর জায়গিরে দুই-চার বছরের বেশি থাকতে পারতেন না। সরকার থেকে দেওয়ার জমি থেকে শুধুমাত্র তাদের বেতনের সমপরিমাণ অর্থই আদায় করতে পারতেন, তার বেশি নয়।

জায়গীরদার হিসাবে রাজকীয় আইনকানুন উপেক্ষা করার কোন অধিকার জায়গীরদারকে দেওয়া হতো না এবং তাদের নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য সংবাদনবীশ নামে একটি দপ্তর ছিল। সম্রাট তাঁদের কার্যকলাপের অপর সর্বদা কড়া নজর রাখতেন।

আকবর এই জায়গিরদারী প্রথা পছন্দ করতেন না এবং তিনি পদস্থ রাজকর্মচারীদের নগদ টাকায় বেতন ও ভাতা প্রদান করতেন। তিনি মনে করতেন রাজধানী থেকে দূরে অবস্থিত জায়গীর অনেক সময়ে রাজ্যের মধ্যে অবস্থিত একটি ক্ষুদ্র রাজ্য স্বরূপ। এছাড়াও কিছু জায়গীরদার বেশি আয়ের লোভে রায়তদের ওদের উপর অত্যাচার করে অতিরিক্ত কর আদায় করত।

এইসব কারণে সম্রাট আকবর জায়গীরগুলি বাজেয়াপ্ত করে সেগুলিকে সরকারি খাস জমিতে পরিণত করেন।

Leave a Comment